RezwanAhmed & His Team || Software Engineer

Bangladesh

digital evidence


Digital evidence is a probative information stored or transmitted in digital species like data, photograph, audio, video, DVD, memory card, hard disk, e-mail, telegram, telex.

** The laws on criminal procedure in Bangladesh, such as, the Evidence Act of 1872 and the Code of Criminal Procedure (CrPC) 1898 prescribe no explicit provision recognising or approving of its admissibility into judicial proceedings but contain scope of judicial interpretation which may allow for the same.

In Bangladesh, no specific insertions have been made for the admission of digital evidence. However, special laws like the Information and Communication Technology Act of 2006 and the Digital Security Act of 2018 have been enacted.

The words “any matter expressed or described upon any substance by means of letters, figures or marks” under the elucidation of “Documentary Evidence” as codified in section 3 of Evidence Act, section 3(16) of General Clauses Act and section 29 of Penal Code can be interpreted to include digital evidence, since the word “matter” is a term of the widest amplitude.

Judicial interpretation articulates that digital evidence is an amplification of matter expressed or described upon digital substance by means of letters, figures or marks and inclusive of material and secondary evidence. It verbalises that the other forms of digitalisation have the same legal entity. If question as to authentication and tampering of digital evidence arises, the law prescribes gateway to remove any sort of doubt. Expert opinion rule under section 45 of the Evidence Act provides the scope to seek expert opinion of science. Search and examination rule of section 165 and 161 of the Code of Criminal Procedure empower the Investigating Officer to attach anything and examine its maker. This procedure may be followed to cross-examine the makers of the documentary evidence.

To recapitulate, although digital evidence may be admissible under the present law but as proliferation of technology expands and the nature of electronic information grows to be even more complex, the law should be revised to meet the needs of the time.

 

Reference

https://www.thedailystar.net/law-our-rights/news/admissibility-digital-evidence-1790917 


Casino Generation Culture and the Youth in Bangladesh


Casino Business, beside operate Torture cell that used the cell to torture people who would not pay money as per as demands.
The ruling party’s some person performing looted and extortion money from people, different projects of University.

Casino City Dhaka when under going to water, then Water Development Board and Ministry Department singing song and shouted that everywhere they seen the Development. 

Drainage Development now going under water. And the Mayor of the South City Corporation always joking with public through big big promises. Though, South City mayor not get proper success from the Dengue war, but South City mayor bring success poor drainage system.

What a development of the Young generation, our Bangladesh.
Rest, they should be tell to people of country the story of development. Allaah now starting to vanished all story.

যুবলীগ করে খেলার নামে ক্যাসিনো ব্যবসা, মদের ব্যবসা,
ছাএলীগ করে চাঁদাবাজী ।
আর কি বাকি রইল, দে লুটপাট করে দে, সব চেটে লুটপাট করে খাই।
আরও আছে দেখার বাকি… !!!

Always told big big promise in different talk show and in-front of media. But, inner side always beer, huskily in their hand.

Atleast, they’re tired too much stay up in power.
So, setup casino in every ward and cheers up in Casino. Beside, make spoiled life and damaged many youths.

After all, thanks to our PM that hardly caught them and stop the leadership.

ঢাকায় যে কাসিনো আছে জানতাম না।

ঢাকার বাণিজ্যিক এলাকা মতিঝিলে আছে অনেক ক্লাব, যেগুলো রাতের আধারে ঝাঁঝালো আলোয় চলছে ঢাকার যুবক সমাজকে ধ্বংস করার কারখানা।

মজার বিষয়, যারা আটক, তারা কেউ বর্তমান বিরোধী দলের কেউ না। এজন্য, র‌্যাবকে ধন্যবাদ পেতেই হবে।

বাংলাদেশে ক্যাসিনো নিষিদ্ধ থাকা সত্ত্বেও কিভাবে চলছে। অথচ, র‌্যাব যাদের গ্রেপ্তার করেছে, তারা এসব ক্যাসিনো নামের মদ, আর জুয়াড়িদের আসর চালাচ্ছে, আবার বড় বড় গলায় বলে তরুন সমাজ আগামী দিনের ভবিষ্যৎ। এমনকি মুক্তিযোদ্ধা সংসদ নামে যে ক্লাব, সেখানেও মদ আর জুয়ার আসর। অবাক হতে হয় – এভাবে মুক্তিযোদ্ধাদের অপমান করেছে।

আজ যদি বিরোধী দলের কেউ হতো, তাহলে সুষ্ঠ বিচার কি, কত প্রকার, বাঙালী জাতি দেখতে পারতো।


Dengue Session and follow different step against to Mosquito


Why the Mosquito Prevented Coil local company stop their business at this time. It’s very saddest news.

We mango people while using this Mosquito Prevention coil, then the administration some culprits try to stop this local business by inspiring illegal company and gave a big opportunity to enter Indian Company into Bangladesh except tax. They always applying more tax on the country local companies but, same the higher tax not applying on the illegal mosquito company, who using very harmful elements.

The Administration of the Bangladesh section cannot monitor this section. The Administration people and two City Corporation NDCC, SDCC of Dhaka major 85% employee are corrupted, less skilled that addicted into only looted money from the citizen of Bangladesh. But, this 2 city corporation fully failed to stop destroy mosquito in the central city Dhaka.

Absolutely, confused that they always told that they’re walking on the development and spent huge money. But, why continue happening different style corruption.

Attention please follow some steps to far away from attacking into Dengue.

  • Remove and vanished all dust from the outside of your house.
  • Never store any water beside or inside of the Home, always keep surroundings clean to prevent dengue
  • Always uses good quality coil and aerosol for prevented mosquito. Better try to use the electric mosquito coil as like as ACI, Mortin.
  • Always open the window, beside remove curtain into one side that more sun light entry into room. During evening, switched on all light of the room. 


Child Abuse and Rape Scene in Bangladesh


যখন একটি দেশের রাজনীতিদের মাঝে দুর্নীতির প্রবেশ করে, রাষ্ট্রের জনগণের ভোটাধিকার লুট করে, রাতের আধারে ভোট চুরি করে, তখন সেই দেশের রাজনীতি, অর্থনীতি, সব দিক থেকে আক্রান্ত হয়, বিশেষ করে সামাজিক অবস্থার চরম বিপর্যয় ঘটে, এসব ঘটনা ঘটবেই।

খুবই দুঃখজনক, বাংলাদেশের স্বাধীনতার পর বর্তমান বাংলাদেশে ক্ষমতাসীনদের সময়ে কোন নারী এমন কি একটি শিশুও নিরাপদ নয়, যে কারনে ৭ বছরের মেয়ে শিশু ধর্ষণের শিকার হয়, যা অন্যান্য দলীয় সরকারের সময়ের কখনো হয় নাই। অত্যন্ত হৃদয়বিদারক যে বলায় ভাষা নেই। যেসব জানোয়ার এসব করছে, তাদেরকে আক্ষরিক অর্থে কি আইনে শাস্তি দেয়া উচিত বলায় ভাষা নেই।

যে মেয়েটির বয়স ৭ বছর, যার যৌবনের কিছুই হয় নাই, তাঁকে নিয়েও এমন লোমহর্ষক ঘটনা – যা বুঝিয়ে দিয়েছে বাংলাদেশের বিচার বিভাগ আসলেই কি বিচার করতে পারে না কি বিচারের নামে প্রহসন চালাচ্ছে জনগণের উপর।

রাষ্ট্রের বর্তমানে আইন এমন দুর্বল যে তরুণী,মেয়ে শিশু ধর্ষণকারী, তরুণীকে পুড়িয়ে মারা হত্যাকারীদের আজও ফাঁসি কিংবা প্রকাশ্যে মেরে ফেলতে পারছে, কিন্তু ধর্ষক বা হত্যাকারীকে আজ পর্যন্ত ফাঁসিতে ঝুলাতে পারে নাই । আবার এসবের জন্য রাষ্ট্রের তরুণদের রাস্তায় নামতে হয় ফাঁসির জন্য, আন্দোলন করতে।

কি যে বলবো ভাষায় প্রকাশ করতে পারছি না, খুবই দুঃখ জনক। আমার জীবনে দেখা বাংলাদেশের রাজনৈতিক ২ টি দলের মধ্যে বর্তমান ক্ষমতাসীনদের সময়ে যত মেয়ে ধর্ষিত হয়েছে, আর মনে হয় অন্য দলীয় সরকারের আমলে এতটা খারাপ ঘটনা ঘটে নাই। সেই ভোটের রাত বছরের শুরুতে সুবর্ণ চরের ঘটনা থেকে যে পরিমান নারী আমাদের দেশে ধর্ষণের শিকার হয়েছে, তা আর অতীতে কখনো হয় নাই। তারপর একশ্রেণীর কুলাঙ্গার বলবে – উন্নয়ন ব্যাপক, এমন উন্নয়নের দরকার নেই, যেখানে একটি মেয়ে শিশু থেকে কোন নারী নিরাপদ নয় আজ। আইনের শাসন নেই। ওই শালা কুলাঙ্গারের লিঙ্গ টা ইত দিয়ে ঝুলিয়ে রাখা হোক, আর গরম পানির ঝরনা থেরাপি দেয়া হচ্ছে না কেন।

বাংলাদেশের রাজনৈতিক ২ টি দলের মধ্যে বর্তমান ক্ষমতাসীনদের সময়ে যত মেয়ে ধর্ষিত হয়েছে, আর মনে হয় অন্য দলীয় সরকারের আমলে এতটা খারাপ ঘটনা ঘটে নাই। সেই ভোটের রাত বছরের শুরুতে সুবর্ণ চরের ঘটনা থেকে যে পরিমান নারী আমাদের দেশে ধর্ষণের শিকার হয়েছে, তা আর অতীতে কখনো হয় নাই। তারপর একশ্রেণীর কুলাঙ্গার বলবে – উন্নয়ন ব্যাপক, এমন উন্নয়নের দরকার নেই, যেখানে একটি মেয়ে শিশু থেকে কোন নারী নিরাপদ নয় আজ। আইনের শাসন নেই।

সোশ্যাল ওয়েবে বসে ফ্যানের বাতাস আর এসি রুমে বসে মন্তব্য করে কোন কাজ হবে না। বর্তমান ক্ষমতাসীনরা জনগণের রক্ত টাকা পয়সা একজন স্বৈর শাসকের মত চুষে খাচ্ছে। তাঁরা আর্থিক সঙ্কটে আছে, তাই যেখান থেকে পারছে, জনগণের টাকা লুটপাটের মহা আয়োজন চলছে। ব্যাপার না, আমরা জনগণও একজন মহান ক্ষমতাশালী স্রষ্টার কাছে বলতে থাকি। একদিন তাদেরও সম্পদ লুটপাট হবে, যেমন শাস্তি পাচ্ছে এক সময়ের বিএনপি।

উচিত – ধর্ষণকারী আর উত্যক্ত কারীদের লিঙ্গ কর্তন করে, ফাঁসিতে ঝুলানো, সাথে এসব কুলাঙ্গারদের পরিবারের সদস্য, বিশেষ করে মা – বাবাকেও কঠিন শাস্তি প্রদান করা উচিত।

যা দেখে আগামীতে কেউ এসব করার সাহস না পায়।


Amazon forest of South America and Shundorban Mangrove forest of Bangladesh


আমাজন আর বাংলাদেশের সুন্দরবন

আমাজন, ভয়াবহ দাবানলে আমাজনের জঙ্গল পুড়ছে !
** পৃথিবীর অনেক মুসলিম দেশে যে আগুনের খেলা খেলছে ইহুদীরা, এসব নিয়ে প্রতিবাদ করতে পারছে না। তাই উপরে যে স্রষ্টা বসে আছেন, তিনিই এমন শাস্তি দিচ্ছেন।

*** বাংলাদেশের বাঙালীরা এতটাই আবেগপ্রবন জাতি, বিদেশি সংস্কৃতি নিয়ে লাফালাফি করে, কিন্তু নিজের দেশের সংস্কৃতি, ঐতিহ্য বিনাশ হচ্ছে।
আমাদের বাংলাদেশের অনেকের এই ব্যাপারে খুব আগ্রহ নিয়ে বলছে – Buzz তৈরি করা উচিত যাতে পর্যাপ্ত ব্যবস্থা নেওয়া হয় এই দাবানল নির্বাপনের জন্যে । আবার বলছে – ‘ এগিয়ে আসুন ! আমরা কিছু না পারি অন্তত এটাকে ইন্টারনাশন্যাল ইস্যু বানাই, যেন সবার চোখে আসে। ‘

কিন্তু কথা হচ্ছে – এসব সুশীল একটিভ ব্যক্তিরা কিন্তু সূন্দরবন নিয়ে buzz বানাতে পারে নাই, যেন সুন্দরবনের জায়গা বাদ দিয়ে বিদ্যুৎ কেন্দ্র বানানো হয়, আর সুন্দরবন রক্ষায় আন্তর্জাতিক ইস্যু বানাতে পারে নাই, যেন বাংলাদেশের সুন্দরবন রক্ষা পায়।
জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের শত শত গাছ কেটে নির্মাণ করা হবে আবাসিক হল। আসলে, এখন প্রকৃতির জন্য বৃক্ষ এবং ছাত্রছাত্রীদের আবাসন মুখ্য না, আসল হলো এই নির্মাণযজ্ঞের বরাদ্দ করা কোটি কোটি টাকা।

*** বাংলাদেশের বাঙালীরা এতটাই আবেগপ্রবন জাতি, বিদেশি সংস্কৃতি নিয়ে লাফালাফি করে হ্যাশ ট্যাগ দেয় খবর ছড়িয়ে যায়, কিন্তু সেখানে নিজের দেশের সব দিকেই চরম বাজে অবস্থা যাচ্ছে, সেইসব নিয়ে প্রতিবাদের ভাষা প্রকাশ করতে পারে না, দেশের মানুষের রক্ষায় আন্তর্জাতিক ইস্যু বানাতে পারে না, বন সম্পদ বিনাশ হচ্ছে, প্রতিদিন খুন গুম করা হচ্ছে, মেয়েরা ধর্ষণ হচ্ছে, আর আইনের শাসনকে বাঁকা চোখে রাঙ্গিয়ে অপরাধীরা মুক্ত আকাশে ঘুরে বেড়ায়।

উন্নয়নের নামে দুর্নীতি হবে, মানুষের মৌলিক অধিকার কেড়ে নেয়া হচ্ছে, পাশে গাছের ও জীবন বিনাশ হচ্ছে ।

উন্নয়ন বাংলাদেশে অবশ্যই দরকার। কিন্তু মানুষের ক্ষতি করে, প্রকৃতিকে বিনাশ করে কেন ?

 

Amazon and Shundorban of Bangladesh Biggest Mangrove forest in the World.

Amazon rain forest burned heavily last week of the Month August 2019.

But, all Ehudi and Jessu religion country playing with Fire, war with the Islamic Country.


Most Mosquito Prevented Local Company of Bangladesh cannot Operate Their Business


দে রে ভাই বাংলাদেশের বাণিজ্য সব বন্ধ করে।
চলুক ভারতীয় দাদাদের গোদরেজের গুডনাইট

কারখানা বন্ধ করে দিয়েছে মরটিন
উৎপাদন বন্ধ এসিআইয়ের, হারিয়ে গেছে অনেকে। 
বাজারে রেকিট অ্যান্ড বেনকাইজারের মরটিন, এসিআই, কাজী এন্টারপ্রাইজের ইগল, গ্লোবসহ আরও কয়েকটি ব্র্যান্ড সুপরিচিত ছিল।

Most Mosquito Prevented Local Company of Bangladesh cannot Operate Their Business.

Why the Lifesaving Mosquito Prevented Coil local company of Bangladesh stop their business at this time mid 2019. It’s very saddest news.

We mango people while using this Mosquito Prevention coil, then the Bangladesh administration some culprits try to stop this local business by inspiring illegal company and gave a big opportunity to enter Indian Company into Bangladesh except tax. They always applying more tax on the country local companies but, similarly the higher tax not applying on the illegal mosquito company, who using very harmful elements.

The Administration of the Bangladesh section cannot monitor this section. The Administration people and two City Corporation NDCC, SDCC of Dhaka 85% are corrupted, less skilled that addicted into only looted money from the citizen of Bangladesh. But, this 2 city corporation fully failed to stop destroy mosquito in the central city Dhaka.

Absolutely, confused that they always told that they’re walking on the development and spent huge money. But, why continue happening different style corruption.


Aarong Bangladeshi reputed fashion house make chittering with Customers


অবশ্যই আমরা বাংলাদেশীরা বিদেশিমুখি হব না, কিন্তু আড়ং থেকে পণ্য না কিনে, তাদের বিজনেস এর কিছুটা মরিচা ধরিয়ে আড়ং পরিচালনা কমিটিকে এক রকম শাস্তি দেয়া উচিত।

আড়ং ছাড়া বাংলাদেশি ঐতিহ্য ধারন করা অনেক দেশি ব্র্যান্ড শপ আছে, সেসব জায়গা থেকে পণ্য কেনা যেতে পারে। আমি বিগত সময়ে এখন সাদাকালো ‘ র পণ্য, অঞ্জন্স, কে ক্র্যাফট, রঙ এর পণ্য ব্যবহার করে আসছি। আর এসব বাংলাদেশি ফ্যাশন হাউসের পণ্য অবশ্যই দেশের এবং বাংলাদেশের ঐতিহ্য ধারন করে আসছে।

Absolutley, we never go forward to outbound. But, it’s time to avoid to buy product and boycott Aarong, and give a
Punishment to the owner management of Aarong by down stage of their sale.

Lots of Bangladeshi brand fashion house around us in Dhaka and regional all district of Bangladesh. Last some years I always use and buy from Bangladeshi some special brand fashion house as Shadakalo,Anjons, Kay Kraft, Rong, Banglar mela, karupunno, Deshal, etc. All of these fashion house always bear our Bangladesh’s traditions, color of cultures.


Budget of AL Govt. will make poor citizen kill poor people in Bangladesh


আমার মা একটা সময়ে বলতো – একটা সময়ে ছিল আলীগ আসলে দেশের মেয়েদের নিরাপত্তা থাকে না – কথা টা যে কতটা সত্য – একদম প্রমানিত।
এমন কথা নব্য জন্ম নেয়া অনেক আবাল, সুবিধাবাদী তরুন আঃলিগার মানতে চায় না। তারপরও কি জনগণের ঘুম ভাঙবে।

Global Financial Integrity দেওয়া তথ্য অনুযায়ী বাংলাদেশ থেকে শুধু ২০১৫ সালেই পাচার হয়েছে ১৫ হাজার কোটি টাকা ! ২৭ হাজার কোটি টাকার জন্য লক্ষ লক্ষ জনগণের গলায় ছুরি ধরে আজকের চেতনাবাজ ক্ষমতাসীনরাই, অথচ, তাঁরা লক্ষ কোটি টাকা ঋনের খেলাফির সুযোগ করে দিচ্ছে। সঞ্চয়পত্রের উপর অনেক গরীব ও মধ্যবিত্ত পরিবার বেঁচে আছে, কিন্তু বর্তমানের ক্ষমতাসীনরা যা করতে যাচ্ছে, তাতে হিতে বিপরীত হবে।

এখন এই তথাকতিথ চেতনাবাজ ক্ষমতাসীনরাই সাধারন জনগণের সামান্য সঞ্চয়পত্রের টাকা, জমানো অর্থ একদম পাকি রাজাকারদের মত লুটপাটে নামছে উন্নয়নের নামে ছলচাতুরী করে।

আর এই সেই ভক্ষক, যারা ভোট চুরির মাধ্যমে ক্ষমতায় আসে, তাঁরা একদিন না একদিন জনগণের পকেট কাটার রাস্তা করবে – এটাই স্বাভাবিক। সরকার তথা ক্ষমতাসীনরা ভাবে জনগণের কোন ক্ষমতা নেই, ক্ষমতাহীন।

বর্তমান ক্ষমতাসীনদের উন্নয়নের গল্প হচ্ছে – কিছু ব্রিজ, আর সেতু প্রকল্প, আর বড় প্রকল্পের তালিকায় আছে – ধর্ষণ, শেয়ারবাজার লুট, ব্যাংকের টাকা লুট, বেকারত্ব, ব্যবসা বাণিজ্যে স্থবির অস্থিরতা, বেনামী গায়েবি মামলা, যানজট, আর এই সরকারের ১০ বছরে রেকর্ড সড়কে ঝরেছে সাড়ে ২৫ হাজার প্রাণ । আ.লীগের আমল আসলেই ব্যাংক ডাকাতি, ব্যাংক লুঠ, শেয়ার বাজার লুঠ, ব্যাপক হারে ধর্ষণ এসব ইস্যু থাকতেই হবে।

এমন সরকার আর এমন বাংলাদেশ আমরা চাই নাই।

মাঝে মাঝে ভাবি – মহান ক্ষমতাসম্পন্ন আল্লাহ্‌ কবে কিভাবে পারবে এদের বিচার করতে।

The budget for 2019-20 placed on Thursday proposed slapping three more VAT rates — 5 percent, 7.5 percent and 10 percent — along with the current 15 percent which was introduced in 1991.

On this Budget 2019 -2020, Pay more for digital delight and beside a 7.5pc (%) VAT comes to spoil consumers’ mood. When the government should be encouraging virtual businesses, make a plan to build Digital Bangladesh. Thsi 7.5 % vat rate tax will negatively impact on the growth of the digital service industry. 

But, after general election, the existing government always promises to the Citizen of Bangladesh, if they will again selected for ruling and operate Bangladesh, they will try to give suitable Budget for the Citizens of Bangladesh. Already 15 Thousand core money transferred to outside of Bangladesh during this BAL Government session. So, now this Budget 2019 -2020 Bangladesh almost make a route for General People for die anyway, because of price hike, limited savings.