RezwanAhmed & His Team || Software Engineer

স্বৈরাচার পতন দিবস’ নিঃসন্দেহে একটা হাস্যকর

স্বৈরাচার পতন দিবস’ নিঃসন্দেহে একটা হাস্যকর


প্রতিবছর ৬ ডিসেম্বর এলে মহাসমারোহে ‘স্বৈরাচার পতন দিবস’ পালন করা হয়।

কিন্তু স্বৈরাচার পতন দিবস’ বিরাট এক পরিহাস।এরশাদ সরকারের বিরুদ্ধে আন্দোলনের প্রথম বলি হলেন জয়নাল, কাঞ্চন, মোজাম্মেল, জাফর ও দীপালি. এরশাদের সেনাশাসনের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানাতে গিয়ে সেই প্রথম রক্ত ঝরল ঢাকার রাজপথে। এরপরও অনেক তরুণের রক্ত ঝরেছে।
কিন্তু আজও এই তরুণদের ছবি নিয়ে শোভাযাত্রা হয় না।

প্রকৃত অর্থে মাননীয় সাবেক প্রেসিডেন্ট এরশাদ সরকারের আমলে যে উন্নয়নের জোয়ার শুরু হয়, আর যত রাস্তা, সেতু, রেল যোগাযোগের উন্নয়ন হয়, মসজিদ, মাদ্রাসা তৈরি হয়, বাঙালী জাতির মনে রাখা উচিত, ইতিহাস দেখা উচিত।

এমনকি আজ আমরা যেসব রাস্তায় চলাচল করে থাকি সবই মাননীয় সাবেক প্রেসিডেন্ট এরশাদ সরকারের সময়ে তৈরি হয়। বাংলাদেশ রক্তের সিঁড়ি বেয়ে গণতন্ত্রের ঝান্ডা হাতে যাঁরা ১৯৯১ সাল থেকে এ দেশ শাসন করে যাচ্ছেন, তাঁরা এই তরুণদের কজনের নামে কয়টি রাস্তা, সেতু বা ভবনের নামকরণ করেছেন ?

অকৃতজ্ঞ এই দেশ, অকৃতজ্ঞ এই সমাজ !!!
তাই এই ‘স্বৈরাচার পতন দিবস’ নিঃসন্দেহে একটা হাস্যকর।

Advertisements